খুলনা | রবিবার | ২১ জুলাই ২০২৪ | ৫ শ্রাবণ ১৪৩১

পরীমনির কাপড় চেঞ্জ না করা রাজনীতি বললেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী

খবর প্রতিবেদন |
০৪:৩৩ পি.এম | ১০ অগাস্ট ২০২১

মাদক আইনে করা মামলায় ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনিকে চারদিনের রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে তোলা হয়। রিমান্ড শুনানির দিন (৫ আগস্ট) যে পোশাকে পরীমনিকে আদালতে হাজির করা হয়েছিল ঠিক একই পোশাকে আজ তাকে আদালতে হাজির করা হয়।

এই ১২২ ঘণ্টা পরীমনির পোশাক পরিবর্তন না করাকে ‘রাজনীতি’ বললেন রাষ্ট্রপক্ষের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল্লাহ আবু।

রিমান্ড শুনানি চলাকালে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে কাঁদতে দেখা যায় পরীমনিকে। এ সময় পরীমনির আইনজীবী মজিবুর রহমান বলেন, ‘একজন নায়িকা ১২২ ঘণ্টা এক পোশাকে রয়েছেন। তিনি তো একজন নায়িকা। তার তো একটা লাইফস্টাইল রয়েছে।’

এ সময় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু বলেন, ‘পরীমনির কাপড় চেঞ্জ না করা একটা রাজনীতি। এখানে সবাই কাপড় চেঞ্জ করেছেন। তিনি ইচ্ছাকৃতভাবে কাপড় চেঞ্জ করেননি।’

এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘তাকে (পরীমনি) কাপড় দেয়া হয়েছে। তিনি এখানে আসার আগে এ কাপড় পরেছেন। এর আগে তিনি অন্য কাপড় (টি-শার্ট) পরেছিলেন।’

এদিকে পরীমনির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে নতুন করে পরীমনির দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস।

শুনানি শেষে আদালত থেকে বের হওয়ার সময় সাংবাদিকদের পরীমনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে দায়ের করা সব মামলাই মিথ্যা। সাংবাদিক ভাইয়েরা আপনারা তদন্ত করেন। আমাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, ৪ আগস্ট বিকেলে পরীমনির বনানীর বাসায় অভিযান র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে অভিযান চালায় র‌্যাব। প্রায় ৪ ঘণ্টার অভিযান শেষে রাত ৮টার দিকে তাকে আটক করে র‌্যাব সদরদফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ করার কথা জানায় র‌্যাব। এ ঘটনায় পরের দিন পরীমনির বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে র‌্যাব বাদী হয়ে একটি মামলা করা হয়।
 

প্রিন্ট

আরও খবর