খুলনা | রবিবার | ২১ জুলাই ২০২৪ | ৫ শ্রাবণ ১৪৩১

নিউ জিল্যান্ড সিরিজে পরিবার রাখতে পারবেন ক্রিকেটাররা

ক্রীড়া প্রতিবেদক |
০৭:৪৩ পি.এম | ০৮ অগাস্ট ২০২১

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে পরের ক্রিকেট সিরিজ আয়োজন করবে বাংলাদেশ। এই টি-টোয়েন্টি সিরিজে মাহমুদউল্লাহরা চাইলে কোয়ারেন্টাইনে পরিবারকে সঙ্গে রাখতে পারবেন। এ বিষয়ে কোনো আপত্তি জানাবে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

চার দেয়ালে বন্দি জীবন। সর্বোচ্চ দৌড় হোটেলের লবি, সুইমিংপুল বা জিম পর্যন্ত। এরপর মাঠে এসে ব্যাট-বল নিয়ে ঠুকঠাক। কখনো অনুশীলন, কখনো প্রস্তুতি ম্যাচ, কখনো মূল মঞ্চ। গত ২৯ জুন থেকে জাতীয় দল এভাবেই চলছে। প্রথমে জিম্বাবুয়ে সফর। এরপর ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ। সফল দুই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ শেষে অবশেষে জৈব সুরক্ষা বলয় থেকে বের হওয়ার সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ।

অস্ট্রেলিয়া সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি সোমবার (৯ আগস্ট) হবে। ম্যাচের পরপরই বায়ো-বাবল ছেড়ে বেরিয়ে যাবেন ক্রিকেটাররা। সপ্তাহখানেকের ছুটি শেষে আবার প্রস্তুতি শুরু হবে। কারণ এ মাসের শেষেই আবার নিউ জিল্যান্ড ঢাকায় পা রাখবে পাঁচ টি-টোয়েন্টি খেলতে। তবে প্রস্তুতি শুরু হবে সব ফরম্যাটের ক্রিকেটারদের নিয়ে।

ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান রোববার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘খেলোয়াড়রা দীর্ঘ সময় ধরে বায়ো-বাবলে, অনেক কঠিন সময় যাচ্ছে। এত কঠিন সময়েও ভালো পারফরম্যান্স করছে। ওদের কৃতিত্ব দেওয়া উচিত।’

এই সিরিজ নিয়ে বাংলাদেশের পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি জানান, ‘নিউ জিল্যান্ড ২৪ আগস্ট চলে আসবে। বাংলাদেশ দল বায়ো-বাবল থেকে বের হবে ১০ তারিখ। ১৫ আগস্ট পর্যন্ত ওরা বিশ্রামে থাকবে। ১৬ তারিখ থেকে লাল ও সাদা বলের খেলোয়াড়দের নিয়ে ২০ তারিখ পর্যন্ত অনুশীলন করব কোচদের অধীনে। ২২ তারিখের দিকে করোনা পরীক্ষা করে ২৪ তারিখে খেলোয়াড়রা বায়ো-বাবলে চলে যাবে।’

নিউ জিল্যান্ড সিরিজে ক্রিকেটারদের সঙ্গে পরিবার রাখার অনুমতি পাবেন কি না জানতে চাইলে আকরাম বলেন, ‘খেলোয়াড়রা যেভাবে স্বস্তিতে থাকবে, তা করে দিতে কোনো আপত্তি নেই। যেমন মোস্তাফিজের ছিল। কেউ থাকতে চাইলে আমাদের কোনো সমস্যা নেই।’

অস্ট্রেলিয়ার মতো নিউ জিল্যান্ডকেও প্রায় একই রকম জৈব সুরক্ষা বলয় দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিসিবি। মহামারির সময় কোনো ঝুঁকি না নিয়ে সফলভাবে সিরিজ শেষ করতে বদ্ধপরিকর দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

প্রিন্ট

আরও খবর